আম্পায়ারদের অদ্ভুত সিদ্ধান্তে ক্ষুব্ধ বাংলাদেশ কোচ

editoreditor
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ০৯:০১ PM, ৩০ মার্চ ২০২১

সিরিজ হারের চেয়েও, মাঠে আম্পায়ারদের অদ্ভুতুড়ে ব্যবহারে বেশি হতাশ বাংলাদেশ কোচ রাসেল ডমিঙ্গো। টার্গেট না জেনেই মাঠে নামতে হওয়ায় ক্ষুব্ধ তিনি। এছাড়া বৃষ্টির মধ্যেও ফিল্ড আম্পায়াররা খেলা চালিয়ে যাওয়ায়, বিস্ময় প্রকাশ করেছেন এ প্রোটিয়া। হারের জন্য অজুহাত না দেখিয়ে, ক্রিকেটারদের ধারাবাহিকতার অভাবকেই দায়ী করেছেন তিনি।

নিউজিল্যান্ডের ব্যাটিং এর ১৮তম ওভারের শেষ বলটা আর করা হয়নি বাংলাদেশের বোলারদের। বৃষ্টি বাগড়ায় সে দফায় বন্ধ খেলা আর মাঠে নামতে দেয়নি কিউই ব্যাটারদের।

স্বাভাবিকভাবেই ডাক ওয়ার্থ লুইসের শরণাপন্ন হন ম্যাচ রেফারি জেফ ক্রো। ১৬ ওভারে ১৪৮ রানের টার্গেট তাড়া করার উদ্দেশ্যে ম্যাকলিন পার্কে শুরু হয় লিটন-নাঈমের লড়াই। কিন্তু ৯ বল হতে না হতেই থেমে যায় খেলা। তবে, এবার আর বৃষ্টি নয়, আম্পায়ারদের সিদ্ধান্তেই বন্ধ ম্যাচ। টিভি ক্যামেরায় দেখা যায় ম্যাচ রেফারির কক্ষে কথা বলছেন বাংলাদেশ কোচ রাসেল ডমিঙ্গো। কম্পিউটারের সামনে তখন দ্রুত হাতে কিছু একটা করছিলেন ক্রো।

হঠাৎ করেই সিদ্ধান্ত আসলো বদলে গেছে বাংলাদেশের টার্গেট। ১৬ ওভারে এবার ১৭০ রান করতে হবে টাইগারদের। ক্রিকেট ইতিহাসে এমন ঘটনা আগে কখনো ঘটেছে কিনা, জানা নেই কারো। তবে, বিষয়টা একেবারেই ভালোভাবে নেননি রাসেল। চটেছেন ম্যাচ অফিশিয়ালদের ওপর।

রাসেল ডমিঙ্গো জানান, ‘আমি কখনই এমন কোন ম্যাচ দেখিনি। কেউ জানতাম না আমাদের লক্ষ্য কত। আমরা ব্যাট করতে নামছি, অথচ তখনও বৃষ্টি হচ্ছিলো। ডিএল মেথডে কত করতে হবে তাও জানা নেই আমাদের। ম্যাচ শুরু হওয়ার পর হঠাৎ শুনি, আমাদের টার্গেট পরিবর্তন করা হয়েছে। এটা একটা আন্তর্জাতিক ম্যাচ, এভাবে কৌতুক বানানোর মানে হয় না। ডিএল মেথডে সবকিছু ঠিক করার পরই খেলা শুরু করার প্রয়োজন ছিলো।’

এদিকে, এ ঘটনায় বিরূপ মন্তব্য করেছেন নিউজিল্যান্ড অলরাউন্ডার জিমি নিশামও। আম্পায়ারদের পাগল বলেও টুইট করেছেন তিনি। একইরকম বিদ্রূপ করেছেন প্রখ্যাত ক্রীড়া সাংবাদিক গৌরভ কার্লা। আন্তর্জাতিক ম্যাচে আইসিসির একজন এলিট আম্পায়ারের এমন ভুল অবাক করেছে সবাইকে।

তবে, এসব ঘটনার মধ্যেও বাদ পড়েনি সিরিজ হারের হতাশা। অজুহাত না খুঁজে, সে জায়গায় শিষ্যদের ধারাবাহিকতাতেই দুষলেন কোচ।

রাসেল ডমিঙ্গো আরও জানান, ‘নিউজিল্যান্ডে খেলা সবসময়ই কঠিন। তবে এ দলটার সামর্থ্য আছে। কিন্তু ম্যাচে আমরা কিছু ভুল করছি প্রতিদিনই, যেটা আমাদের ব্যাকফায়ার করেছে। ধারাবাহিকতা না থাকলে এসব কন্ডিশনে জেতা সম্ভব না।’

পহেলা এপ্রিল অকল্যান্ডে শেষ ম্যাচ দিয়ে পর্দা নামবে বাংলাদেশের বিভীষিকাময় নিউজিল্যান্ড সফরের।

আপনার মতামত লিখুন :